Mangsho Ranna Korar Tips (মাংস রান্না করার রেসিপি, উপায়) in Bangla

আজকে জানতে পারবেন মাংস রান্না করার সহজ উপায় বা পদ্ধতি। গরুর মাংস রান্নার রেসিপি এবং মুরগির মাংস রান্না করা, মাংস রান্নার পদ্ধতি, মাংস রান্নার নিয়ম, মাংস রান্নার টিপস, মাংস রান্নার রেসিপি দেখান, মাংস রান্না করার সকল পদ্ধতি গুলো।

Mansho Ranna korar Upay, Poddoti, niyom, Tips সকল মেয়েদের জন্য উপযুক্ত, কারন মেয়েরা রান্না করা পছন্দ করে। এবং বাংলাদেশের মেয়েদের রান্না করার দারুণ ইচ্ছে রয়েছে। বাংলার মেয়েরা মজার মজার রান্না করতে ভালোবাসে। এর মধ্যে মুরগী বা গরুর, যে কোন মাংস রান্না করা সব চেয়ে বেশি প্রয়োজনীয়, কারন মাংস হলো সব চেয়ে সুস্বাদু খাবার।

অনেক সময় ছেলেদেরকে ও মাংস রান্না করার প্রয়োজন হয়। তাই Murgir Mangsho and gorur Mangsho ranna kora শিখে নেওয়া দরকার।

কারু কাছে হাত পাতা লাগবে না, আজকে এই অনলাইন টিপস এর মাধ্যমে মাংস রান্না করা শিখে নিতে পারবেন।
murgi ranna
murgir jhol
kosha murgir mangsho bengali recipe
ranna recipe
chicken ranna
bengali chicken ranna
murgir mangsho virus
chicken curry
Murgir Mangsho Ranna - মুরগির মাংস রান্নাতা হলে শুরু করা যাক, Murgir Mangsho Ranna - মুরগির মাংস রান্না
মুরগির মাংস রান্না দেখানমুরগির মাংসের ঝোলমুরগির মাংস কষা রেসিপিগরুর মাংস রান্না করাদেশি মুরগির মাংস রান্নাআলু দিয়ে মুরগির মাংসের ঝোলমুরগির মাংস ভুনামুরগির মাংসের উপকারিতা

প্রথমে মুরগির মাংস রান্না জানুন


মাংসের মধ্যে মুরগীর মাংস সব চাইতে সুস্বাদু এবং সব চাইতে বেশি স্বাস্থ সম্মত। নিয়মিতই সবাই মুরগীর মাংস murgir mangso খেয়ে থাকি। আজকে আমরা ২টি সুস্বাদু মুরগীর মাংস রান্নার রেসিপি জানাবো। এটি পড়ে আরো মজার কিছু আইটেম রান্না করতে পারবেন। খাবারের মাঝে মাঝে বৈচিত্র আনার জন্য এ পোস্টটি আপনার জন্য অনেক কাজে লাগবে।

১. ঝাল ফ্রাইজি

কি কি লাগবে?
ছোট করে কাটা মুরগীর মাংস ৫০০ গ্রাম, টমেটো কুচি ১ কাপ, টমেটো সস আধা কাপ, চিলি সস ৩ টেবিল চামচ, লবণ পরিমান মতো, কাঁচা মরিচ ফালি ৪ টি, রসুন বাটা ১ চা চামচ, আদা বাটা ২ চা চামচ, সয়াবিন তেল ১ কাপের চার ভাগের এক ভাগ, টক দই টেবিল চামচ, ভাজা গোল পেয়াজ ১ কাপ. মরিচ গুড়া ২ চা চামচ, তেজপাতা ২ টি, ধনে পাতা কুচি পরিমানমতো।

রান্নার প্রক্রিয়া
১. কড়াইয়ে তের গরম করে তেজপাতাসহ সব মসলা দিয়ে কষিয়ে টমেটো কুচি দিন।
২. মুরগীর মাংস ও টক দই দিয়ে কষিয়ে পেঁয়াজ দিয়ে ঢেকে হালকা আঁচে দিন।
৩. মাংস সিদ্ধ হলে টমেটো সস, চিলি সস, লবণ, কাঁচা মরিচ ফালি, ধনেপাতা কুচি দিয়ে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

২. মুরগীর মাংসের টিক্কা

কি কি লাগবে?
মুরগীর মাংসের কিমা ২ কাপ, পেঁয়াজ বাটা আধা কাপ, কাঁচা মরিচ ৩ টি, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, আদা বাটা ২ টেবিল চামচ, সয়াবিন তেল ১ কাপের চার ভাগের এক ভাগ, ঘি ৩ টেবিল চামচ, টকদই আধা কাপ, পেয়াজ বেরেস্তা আধা কাপ, গরম মসলা ১ চা চামচ, কাজু ও পোস্ত বাটা একসঙ্গে মিলিয়ে ৩ টেবিল চামচ, লবণ পরিমানমতো।

রান্নার প্রক্রিয়া
১. মুরগীর কিমা, লবণ, আদা বাটা দিয়ে এক সঙ্গে মেখে ছোট ছোট মার্বেলের মতো বল করে ২০ মিনিট রেখে দিন।
২. এবার কড়াইয়ে তেল দিয়ে পেঁয়াজ বাটা, রসুন বাটা, আদা বাটা, কাজু ও পোস্ত বাটা দিয়ে মসলা ভুনে বল গুলো দিন। সঙ্গে দই দিয়ে কষান। পানি দেওয়া যাবে না।

৩. ঘন হয়ে এলে কাঁচা মরিচ, ঘি, গরম মসলা গুঁড়া ও পেয়াজ বেরেস্তা দিয়ে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

biye barir gorur mangsho
gorur mangsho biryani
gorur mangsho kala bhuna
gorur mangsho kata
gorur mangsho rezala
murgir mangsho ranna
gorur mangsho picture
alu diye gorur mangsho ranna
Gorur Mangso Ranna - গরুর মাংস রান্না
এবার গরুর মাংস রান্না জানুন (Gorur Mangsho Ranna Tips in Bangla) 

গরুর মাংস রান্নার মসলাবিয়ে বাড়ির গরুর মাংস রান্নাগরুর মাংস ভুনাহোটেলের গরুর মাংস রান্নাগরুর মাংস রান্না ছবি১০ কেজি গরুর মাংস রান্নার রেসিপিগরুর মাংস ভুনা ছবিগরুর মাংসের রেজালা রেসিপি


এক রকম গরুর মাংস ভুনা আর কতদিন খেতে ভালো লাগে? কোরবানির ঈদে তাই গরুর মাংস দিয়ে তৈরি করে নিতে পারেন নতুন কোনো আইটেম। ঈদের দিন সবাই খাবার টেবিলে চায় নতুন নতুন ও ভিন্ন স্বাদের সব খাবার আইটেম। এই কোরবানির ঈদে আপনি তৈরি করতে পারবেন Gorur Mangso Ranna - গরুর মাংস রান্না - গরুর মাংসের নতুন ৮টি রেসিপি।

১.গার্লিক বিফ: 

যারা গরুর মাংস ঝাল করে খেতে পছন্দ করেন তাদের জন্য গার্লিক বিফের তুলনা হয় না। ঈদের দিন ঘরেই পাবেন রেস্তোরার গার্লিক বিফের মজাদার স্বাদ।

প্রয়োজনীয় উপকরণ : গরুর মাংস ১ কেজি, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, হলুদ ও মরিচ গুঁড়া ১ কাপ, আদা ও রসুন বাটা আধা চা চামচ, রসুনের কোয়া ৪/৫টি, ধনে ও জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, টেস্টিং সল্ট সামান্য, তেল আধা কাপ, মাংসের মসলা আধা চা চামচ, টমেটো সস আধা কাপ, টক দই ১ কাপ, গরম মসলা গুঁড়া আধা চা চামচ, লবণ স্বাদ মতো।

প্রস্তুত প্রণালী: মাংস ধুয়ে কেটে নিন। একটি পাত্রে মাংস, হলুদ, মরিচ, টক দই, আদা, রসুন, লবণ, ধনে, জিরা গুঁড়া, টেস্টিং সল্ট ভালো করে মিশিয়ে ২০ মিনিট মেরিনেট করে রাখুন। কড়াইতে তেল গরম করে পেঁয়াজ বাদামী করে ভেজে মাংস দিয়ে নেড়ে কষাতে হবে।

কষানো হলে সামান্য পানি দিয়ে নেড়ে ঢেকে রাখতে হবে। মাংস সিদ্ধ হয়ে আসলে টমেটোসস, কাঁচামরিচ ফালি ও রসুনের কোয়া দিয়ে ১০ মিনিট দমে রেখে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।       


গরুর মেজবানি মাংস:

 বিয়ের অনুষ্ঠানে বা রেস্টুরেন্টে গেলে খেতে পারেন গরুর মেজবানি মাংস। কিন্তু চাইলে এইে ঈদে আপনিও ঘরে তৈরি করতে পারেন সুস্বাদু ও ঐতিহাসিক গরুর মেজবানি মাংস।

প্রয়োজনীয় উপকরণ: গরুর মাংস ২ কেজি, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, হলুদ ও মরিচ গুঁড়ো ১ টেবিল চামচ, ধনে ও জিরা গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, সরিষার তেল ১ কাপ, মাংসের মসলা ১ চা চামচ, টক দই ১ কাপ, কাঁচামরিচ ১০/১২টি, গোলমরিচ ১ চা চামচ, দারচিনি ও এলাচ ৫/৬টি, জয়ফল ও জয়ত্রী আধা চা চামচ, মেথি গুঁড়া ১ চা চামচ, লবণ স্বাদমতো।

প্রস্তুত প্রণালী: মাংস ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। একটি পাত্রে মাংস, তেল, টক দই, হলুদ, মরিচ, আদা, রসুন, পেঁয়াজ, লবণ ও সব মসলা নিয়ে মেরিনেট করে রাখুন। অর্ধেক পেঁয়াজ তেলে ভেজে বেরেস্তা করে নিন।

চুলায় হাঁড়ি বসিয়ে মেরিনেট করা মাংস কষাতে থাকুন। হাঁড়িতে ২ কাপ পরিমাণ পানি দিয়ে আরো কিছুক্ষণ কষাতে হবে। মাংস থেকে পানি ঝরে গেলে মৃদু আঁচে মাংস সিদ্ধ না হওয়া পর্যন্ত রান্না করুন।

মাংসের পানি শুকিয়ে এলে কাঁচামরিচ, ধনে, জিরা গুঁড়া দিয়ে মৃদু আঁচে ১০ মিনিট দমে রেখে নামিয়ে পেঁয়াজ বেরেস্তা দিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন সুস্বাদু গরুর মেজবানি মাংস। 

কাটা মসলায় বিফ ভুনা: 

ঈদের দিন খিচুরী বা পোলাও দিয়ে গরুর মাংস ভুনা খাওয়ার কথা চিন্তা করলেই জিভে পানি এসে যায়। আর এই ভুনা মাংস যদি হয় কাটা মসলার ভুনা তাহলে তো কথাই নেই। ঈদের আনন্দ হয়ে যাবে দ্বিগুণ।

প্রয়োজনীয় উপকরণ : গরুর মাংস ১ কেজি, আদা বাটা ১ টেবিল চাচমচ, রসুন বাটা আধা টেবিল চামচ, জয়ফল ও জয়ত্রী আধা টেবিল চামচ, হলুদ গুঁড়া সামান্য, দারচিনি, এলাচ, তেজপাতা ১/২ টি, শুকনো মরিচ কাটা ১৫/২০টি, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, টক দই আধা কাপ, লবণ স্বাদমতো, তেল পরিমাণমতো।

প্রস্তুত প্রণালী: টক দই দিয়ে মাংস আধা ঘণ্টা ভালো করে মেরিনেট করে রেখে দিতে হবে। চুলায় তেল গরম হলে মাংস ছেড়ে দিয়ে ভালো করে ভাজতে হবে। ভাজা হলে পেঁয়াজ কুচি ও শুকনো মরিচ দিতে হবে। এবার সব মসলা মাংসে দিয়ে ভালো করে কষাতে হবে।

কষানো হলে একটু পানি দিয়ে দমে বসিয়ে রাখতে হবে। মাংসের ওপর তেল ভেসে উঠলে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন কাটা মসলায় বিফ ভুনা।

গরুর কড়াই গোস্ত:

কাশ্মীরি পোলাও এর সঙ্গে সব থেকে বেস্ট যে আইটেমটি যায় তাহলো গরুর কড়াই গোস্ত।

প্রয়োজনীয় উপকরণ : গরুর মাংস ১ কেজি, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, হলুদ ও মরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, রসুন কোয়া ২/৩টি, মাংসের মসলা ১ চা চামচ, দারচিনি ও এলাচ ৩/৪ টুকরো, জয়ফল ও জয়ত্রী বাটা ১ চা চামচ, টক দই ১ কাপ, টমেটো কিউব ১ কাপ, তেজপাতা ২টি, তেল ১ কাপ, লবণ স্বাদমতো।

প্রস্তুত প্রণালী: মাংস ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিয়ে একটি পাত্রে মাংস, টক দই, লবণ ও সব মসলা একসঙ্গে ভালো করে মেখে ২০ মিনিট মেরিনেট করে রাখুন। হাঁড়িতে তেল গরম করে অর্ধেক পেঁয়াজ কুচি, দারচিনি, এলাচ, তেজপাতা হালকা বাদামী করে ভেজে মেরিনেট করা মাংস দিয়ে নেড়ে কষাতে হবে। ৪ কাপ পরিমাণ পানি দিয়ে মৃদু আঁচে রান্না করতে হবে।

মাংস সিদ্ধ হয়ে আসলে ও মাংসের ওপর তেল ভেসে উঠলে নামিয়ে রাখতে হবে। তেল গরম করে পেঁয়াজ কুচি, রসুনের কোয়া, টমেটো কিউব হালকা বাদামী করে ভেজে মাংস কড়াইএ দিয়ে ২/৩মিনিট দমে রেখে নামিয়ে ফেলুন। ব্যস তৈরি হয়ে যাবে গরুর কড়াই গোস্ত।

আলু বোখারায় টক ঝাল গরুর মাংস:  

কোরবানির ঈদ মানেই ঈদের দিন খাবার টেবিলে থাকতে হবে গরুর মাংসের হরেক রকম পদ। তাই খাবার টেবিলে আইটেমে চমক ও নতুনত্ব আনতে তৈরি করুন আলু বোখারায় টক ঝাল গরুর মাংস।

প্রয়োজনীয় উপকরণ : গরুর মাংস দেড় কেজি, পেঁয়াজ বাটা আধা কাপ, বাদাম বাটা ১ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, আদা বাটা ২ টেবিল চামচ, টক দই ১কাপ, লেবুর রস ১ চা চামচ, শুকনা মরিচ টালা গুঁড়া ১ চা চামচ, কাঁচা মরিচ ৪/৫ টি, হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, আলু বোখারা ১০/১২টি, কিসমিস বাটা ১ টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ ৪/৫টি, ঘি ৩/৪ কাপ, জয়ফল ও জয়ত্রী বাটা আধা চা চামচ।

প্রস্তুত প্রণালী: পেঁয়াজ বাদামী করে ভেজে আদা, রসুন, পেঁয়াজ বাটা, লবণ দিয়ে কষিয়ে মাংস ঢেলে আবার কষাতে হবে। দই, হলুদ,মরিচ, গোলমরিচ ও সামান্য গরম পানি দিয়ে আবার কষাতে হবে। বাদাম ও কিসিমিস বাটা ও অর্ধেক আলু বোখারা বাটা(বিচি ফেলে) ও বাকি অর্ধেক আলু বোখারা আস্ত ছিটিয়ে ৫ মিনিট পর নামিয়ে ফেলুন নতুন এই মজাদার আইটেমটি।

গরুর মাথার মাংস ভুনা: 

অনেকেই আছেন গরুর মাংস থেকে গরুর মাথার মাংস খেতে বেশি পছন্দ করেন। তবে যেমন তেমন করে রান্না করলে কেউ তেমন একটা পছন্দ করবে না এই খাবারটি। তাই নতুন রেসিপি দিয়ে এবার রান্না করেই দেখুন গরুর মাথার মংস ভুনা।

প্রয়োজনীয় উপকরণ : গরুর মাথার মাংস ১ কেজি, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, টমেটো কুচি আধা কাপ, হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, আদা বাটা ১ চা চামচ, ধনে গুঁড়া আধা চা চামচ, সরিষার তেল আধা কাপ, গোলমরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, তেজপাতা ২টি, গরম মসলা গুঁড়া ১ চা চামচ।

প্রস্তুত প্রণালী: তেলে পেঁয়াজ বাদামী করে ভেজে হলুদ গুঁড়া, তেজপাতা, মরিচ গুঁড়া, আদা বাটা, রসুন বাটা, পেঁয়াজ বাটা, টমেটো দিয়ে কষাতে হবে। তারপর পরিমাণ মতো গরম পানি দিয়ে ঢেকে দিন। গরম মসলা গুঁড়া, জিরা গুঁড়া, ধনে গুঁড়া, জয়ফল ও জয়ত্রী গুঁড়া দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। মাংস সিদ্ধ হয়ে গেলে নামিয়ে পরিবেশন করুন ভাতের সঙ্গে।

গরুর কালা ভুনা: 

গরুর মাংসের এই মজার খাবারটি সম্পর্কে অনেকেই জানেন। তবে এর আসল রেসিপি জানেন না অনেকেই। ঐতিহাসিক এই লোভনীয় খাবারটি এই ঈদে আপনার খাবারের মেনুতে নিয়ে আসতে পারে টুইস্ট।

প্রয়োজনীয় উপকরণ: গরুর মাংস দেড় কেজি, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা আধা চা চামচ, হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, ধনে গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, গোলমরিচ গুঁড়া আধা টেবিল চামচ, এলাচ, দারচিনি , তেজপাতা কয়েকটি, গরম মসলা গুঁড়া আধা চা চামচ, লবণ পরিমাণমতো, সরিষার তেল পরিমাণমতো, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ।

প্রস্তুত প্রণালী: গরুর মাংসের সঙ্গে সব উপকরণ এক সঙ্গে মেখে রান্না করুন। মাংস সিদ্ধ হয়ে পানি শুকিয়ে এলে লোহার কড়াই এ সরিষার তেলে হালকা আঁচে মাংস কালো করে ভেজে তুলে নিন।

আশা করি, সবাই বুঝতে পেরেছেন। উপরুক্ত উপায়ে আপনারা, গরু ছাগল, হাস, মুরগির মাংস রান্না করতে পারবেন। খাসির মাংস রান্না করার ক্ষেত্রে গরুর রেসিপি মেনে চলবেন।

ধন্যবাদ সবাইকে।                
Close