Bhooter Golpo 2020 (ভুতের গল্প ২০২০) ভয়ংকর ভুত

Bhooter Golpo 2020 (ভুতের গল্প ২০২০) ভয়ংকর ভুত - ভয় পাওয়ার মতো গা ছমছম করা ভুতের গল্প পড়ুন। বাংলা ভুতের গল্প পড়ে ভয়ে কেপে উঠবেন। সেরা সত্যি কাতের ভয় পেতে এখনই পড়ে নিন -  Bhooter Golpo 2020 (ভুতের গল্প ২০২০) ভয়ংকর ভুত আশা করি ভয় পাবেন।


গল্প লেখক মিজান খান
লেখা হয়েছে রাত ১ টা সময়,
১১ আগস্ট ২০২০ সালে!
Bhooter Golpo 2020 (ভুতের গল্প ২০২০) ভয়ংকর ভুত
Bhooter Golpo 2020 (ভুতের গল্প ২০২০) ভয়ংকর ভুত 

জ আমি যেই ভুতের গল্প শেয়ার করবো, এটা আমার চাচার সাথে ঘটেছিল।   
আমার চাচা একজন কৃষক! বাড়ি থেকে অনেক দুরে পরিত্যক্ত জনবসতি হিন একটি জায়গা রয়েছে, সেখানে চাষাবাদ করা হয়।     

আমার চাচা সেখানে বেগুন চাষ করেছে। 
আমার চাচা, প্রতিদিন সকালে উঠে বেগুন পারতে যায়, বাজারে নেওয়ার জন্য। তবে সকালে গেলে রেডি হয়ে বাজারে যেতে অনেক দেরি হয়ে যায়। ফলে বেগুন বিক্রি করতে সমস্যা হয়। তাই আমার চাচা একদিন ভাবে যে, খুব দ্রুত শেষ রাতে বেগুন পাড়তে চলে যাবে।

এই জন্যে প্রস্তুতি নিয়ে নেয়, এবং পাশের বাড়ির দুলাল কে আগে থেকেই বলে রাখে, যেন চাচার সাথে যায়। দুলাল হল চাচার বন্ধু।

রাত হয়ে গেছে চাচা গুমিয়ে পড়ে, হঠাত চিনের চালে বিকট শব্দ হয়, এবং চাচা ঘুম থেকে উঠে বসে, চার দিকে ঝিঝি পুকার ডাক, চাচার মনে হলো হয়তো শেষ রাত হয়ে এসেছে। ঘটনা টি অনেক দিন আগের, চাচা তখন ঘরি ব্যবহার করতেন না।

ঠিক এই মুহুর্তেই চাচাকে কে যেন, ভয়ানক গলার আওয়াজে ডাকা শুরু করলো, চাচা প্রথমে বুজতে পারেনি, কিছুটা ভয়ে পেয়ে গেল।

খেয়াল করতেই, বুঝল দুলাল এর কন্ঠ!
চাচা তখন উঠে লাইট নিয়ে বাইরে গিয়ে দেখে কেউ নেই, খুজে না পেয়ে ঘরে ঢুকার মুহূর্তে, পিছন থেকে কে যেন গরম বাতাস দিয়ে, বলছে এদিকে আয়! 

চাচা পিছনে ফিরতেই দেখে দুলাল সিগারেট মুখে দাড়িয়ে আছে। তবে সিগারেটের দুয়া থেকে কেমন জানি আতরের গন্ধ আসছিল।
আর খুব গরম বাতাসের মতো দুয়া গুলো চাচার পাশ দিয়ে যাচ্ছিল।

তবুও চাচা ছিল সাহসি, ভয় পেতেন না কিছু। তাই সে দুলাল এর সাথে তৈরি হয়ে বেগুন খেতে যাওয়ার জন্য খাচা এবং লাইট নিয়ে আসে!

বলে রাখা ভাল, বেগুন ক্ষেতের পাশে ছিল হিন্দুদের বসবাস! সেখানে শসানঘাট রয়েছে, সে খানে মানুষ পুড়ানো হয়। চাচা যাওয়ার সময়, দুলাল কিছু পথ গিয়ে আবার দাড়িয়ে থাকে, ঝুপের ভেতর লুকিয়ে থাকে কি সব অদ্ভুত কাজ করতে থাকে। ত আমার চাচার কাছে ছিল একটা লুহার লাঠি, যখন দুলাল এমন শুরু করল, চাচা তাকে লুহার লাঠি দিয়ে দিল এক বারি।

দুলাল তখন আর দুলাল ছিল না দুলাল হয়ে গেল একটা ভয়ানক বিশ্রি রক্ত মাখা পুড়া লাস, চাচা এটা দেখে খুব ভয় পেয়ে গেল, যখন লাস টা চাচা কে ধরতে আসে, চাচা তখন লুহার লাঠি দিয়ে ইচ্চে মত পেটাতে থাকে। চোখ বন্ধ করে পিটাতে পিটাতে সব শেষে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। অই দিন সকাল হলে, চাচাকে একটি ঝুপের ভেতর পাওয়া যায়। সাথে ছিল বড় একটি মরা কাক"
বাড়িতে এনে চিকিৎসা করার পর জ্ঞান ফিরে।         

ধন্যবাদ সবাইকে।
ভুতের গল্প টি পড়ে ভালো লাগলে শেয়ার করতে পারবেন।