👉 How to make Money Online in Bangladesh
BDRong99

Mobile Diye Taka income 2022 | মোবাইল দিয়েই টাকা ইনকাম | প্রতিদিন ১০ ডলার আয় করুন | অনলাইন ইনকাম

Mobile Diye Taka income 2022 | মোবাইল দিয়েই টাকা ইনকাম | প্রতিদিন ১০ ডলার আয় করুন | অনলাইন ইনকাম

বন্ধুদের সাথে আড্ডা না দিয়ে, ঘরে বসে দরজা বন্ধ করে - চার দেয়ালে থেকেই অনলাইনে টাকা আয় করার সেরা কিছু পদ্ধতি এবং উপায় শেয়ার করলাম। ছেলে হুক বা মেয়ে অনলাইনে টাকা ইনকাম করা উভয়ের জন্যই সুবিধাজনক! তবে পরিশ্রম টা শুধু টেকনিক টা জানতে হবে। In 2022, Mobile diye taka income is very easy, Mobile diye taka income from Bangladesh

কঠিন কিছুই নেই অনলাইনে টাকা ইনকাম করার কাজে, তবে বুকার মতো মন হলে, প্রতারিত হতে পারেন অনেকে। তাই অনলাইন আর্নিং শিখতে কারু কাছে হাত না পেতে, গুগল বা ইউটিউব এ অনুসন্ধান শুরু করে দিন।           

আমার ইনকাম ভিডিও প্রুফ:



কোন কোন বিষয়ে অনুসন্ধান শুরু করলে অনলাইনে টাকা উপার্জন করা পেশা হিসেবে ও নিতে পারবেন, সেই বিষয়েই আজকে সম্পুর্ন ধারণা পাবেন।

আমি নিজেই প্রতিদিন ১০ ডলার প্লাস ইনকাম করে থাকি, আমার পেমেন্ট প্রুফ ভিডিও টিউটোরিয়াল দেখলেই বুঝতে পারবেন যে আমি মোবাইল ফোন দিয়েই টাকা ইনকাম করে থাকি। 

আমার পেমেন্ট প্রুফ ভিডিও টিউটোরিয়াল:





চার দেয়ালে থেকে অনলাইনে টাকা আয় করার সেরা কিছু পদ্ধতি এবং উপায়

শুধু করা যা তাহলে🤔

অনলাইনে টাকা আয় করার জন্য নানারকম পদ্ধতি রয়েছে । ইনকাম করার সকল পদ্ধতিকে আবার দুইভাগে ভাগ করা হয়েছে ।  একটি হল একটিভ ইনকাম (Active Income) এবং অপরটি হলো প্যাসিভ ইনকাম (Passive Income) ।

 পৃথিবীর অন্যতম বিখ্যাত এবং ধনী ব্যক্তি ওয়ারেন বাফেট ( Warren Buffett ) বলেছেন: যতক্ষণ না তুমি  ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে ইনকামের রাস্তা খুঁজে না পাচ্ছো, ততক্ষণ তোমাকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত কাজ করে যেতে হবে ।
  • ফেসবুকে কিভাবে টাকা আয় করা যায়
  • টাকা আয় করার apps
  • অনলাইনে আয় বিকাশে পেমেন্ট 2019
  • টাকা আয় করতে চাই
  • অনলাইনে আয় ২০২০
  • মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করুন 2020
  • অনলাইনে আয়ের সহজ পদ্ধতি
  • মোবাইলে অনলাইনে আয় ২০২০


আপনি যতটুকু কাজ করবেন তার বিনিময় যে টাকাটা পাবেন সেটা হলে একটিভ ইনকাম। প্যাসিভ ইনকাম হলো  আপনি কিছুদিন কষ্ট করার পর সেটা থেকে আস্তে আস্তে কিছু অর্থ  পেতে শুরু করলেন এবং সেই ইনকামটা  দিন দিন বাড়তে থাকল।

প্যাসিভ ইনকাম এর ক্ষেত্রে আপনি ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন এবং এই বিষয়টি সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ার পর খুব সহজেই বুঝতে পারবেন। একটিভ ইনকাম এর ক্ষেত্রে  আপনি কাজ করার সাথে সাথেই  টাকা পেয়ে যাবেন কিন্তু প্যাসিভ ইনকাম এর ক্ষেত্রে কিছুদিন আপনাকে কষ্ট করতে হবে তারপর থেকে ইনকাম শুরু হবে ।

যেখানে যত বড় বড় মানুষ আছেন তাদের বেশিরভাগ মানুষ এই সফল হয়েছেন প্যাসিভ ইনকাম এর মাধ্যমে । তাই আজকের এই টপিকে আমি আপনাদেরকে  কিছু  প্যাসিভ ইনকাম এর সেরা পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা করব ।

 অনলাইনে টাকা আয়  করার সেরা কিছু পদ্ধতি

ঘুমিয়ে ঘুমিয়েও টাকা আয়  করা যায়  অর্থাৎ প্যাসিভ ইনকাম এর ক্ষেত্রে সর্বপ্রথম যে বিষয়টি আমি রাখবো সেটি হল-

1. ব্লগিং করে টাকা আয়: ব্লগিং হলো এমন একটি মাধ্যম যার সাহায্যে আপনি ঘরে বসেই সারা জীবন ইনকাম করতে পারবেন এবং এটি প্যাসিভ ইনকামের একটি   অসাধারণ মাধ্যম। এটিতে মূলত আপনার নিজস্ব একটি ওয়েবসাইট থাকবে যেখানে আপনি লেখালেখি করবেন।
অনলাইনে টাকা আয় করার সেরা কিছু পদ্ধতি এবং উপায়

ব্লগিং করার ক্ষেত্রে  আপনাকে অত্যন্ত ধৈর্যশীল হতে হবে এবং প্রথম তিন থেকে চার মাস  কোন প্রকার  ইনকামের আশা ছাড়া মনোযোগ সহকারে কাজ করে যেতে হবে। তিন থেকে চার মাস পর  আপনি সেটা দিয়ে বিভিন্নভাবে টাকায় করতে পারেন।

ব্লগিং এর বিষয়ে বিস্তারিত জানতে ব্লগিং করে টাকা আয় করুন  আর্টিকেলটি পড়ুন । আশা করি ব্লগিং করে টাকা আয় সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

2. অ্যাপ্লিকেশন ডেভলপমেন্ট করে আয়: ব্লগিং এর মত অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট করেও আপনারা খুব সহজেই ঘরে বসে সারা জীবন ইনকাম করতে পারেন। এক্ষেত্রেও আপনাকে সাদর প্রথমে  ধৈর্য সহকারে একটি অ্যাপ্লিকেশন তৈরির জন্য কাজ করে যেতে হবে।

সম্পূর্ণ অ্যাপ্লিকেশনের কাজ সঠিকভাবে শেষ করার পর সেটি আপনাকে প্লে স্টোরে পাবলিশ করে দিতে হবে। অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট এর ক্ষেত্রেও আপনার ইনকামটি  হবে প্যাসিভ ইনকাম।মোটামুটি ভালো একটা এপ্লিকেশন তৈরি করার পর সেটা থেকে ইনকাম করতে  ব্লগিং এর মতোই  তিন থেকে চার মাস সময় আপনাকে অপেক্ষা করতে হবে।

অ্যাপ্লিকেশন ডেভলপমেন্ট এর বিষয়ে বিস্তারিত জানতে অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট করে আয় সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন । আশা করি অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট করে আয়  সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

3. ইউটিউব থেকে আয়: ব্লগিং এবং এপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট এর মতই আরেকটি হল  ইউটিউবিং করা। তবে ব্লগিং এবং  অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট এর চেয়ে  ইউটিউব থেকে আয় করা আরো অনেকাংশে কঠিন হয়ে পড়ে।

তবে আপনি যদি  মনোযোগ সহকারে ইউটিউবে কাজ করেন  তাহলে পাঁচ থেকে ছয় মাসের মধ্যেই ইউটিউব থেকে টাকা আয় করতে পারবেন। আপনি যদি   ধৈর্য সহকারে কাজ করতে পারেন  তাহলে অবশ্যই ইউটিউব থেকে আয় করার পাশাপাশি খুব  সহজে ইউটিউবে সফলতা অর্জন করতে পারবেন।

ইউটিউব সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ইউটিউব থেকে আয় সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। আশা করি আর্টিকেলটি পড়ার পর ইউটিউবিং সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন  এবং নতুন কিছু শিখতে পারবেন।

4.ছবি বিক্রি করে আয়: এতক্ষণ যতগুলো প্যাসিভ ইনকামের রাস্তা বললাম তাদের থেকে একটু ব্যতিক্রমধর্মী  প্যাসিভ ইনকাম এর  রাস্তা হল-  ছবি বিক্রি করে আয়। হয়তো অনেকের কাছে বিষয়টি নতুন  অথবা অবাককর মনে হতে পারে  কিন্তু ছবি বিক্রি করেও অনলাইনে টাকা ইনকাম করা সম্ভব।

ছবি বিক্রি করে টাকা আয় করার জন্য বিভিন্ন ধরনের স্টক ইমেজ সেলিং ওয়েবসাইট রয়েছে সেখানে আপনি আপনার পছন্দের ছবিগুলি ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুব সহজেই সেল করে দিতে পারবেন।

 আবার এমনও কিছু ছবি বিক্রি  করে আয় করার ওয়েবসাইট রয়েছে যেখানে আপনি আপনার পছন্দের ছবিগুলি আপলোড করবেন এবং সেখান থেকে যাদের পছন্দ হবে তার আপনার ছবিগুলো কিনে নিবে।
অনলাইনে টাকা আয় করার সেরা কিছু পদ্ধতি এবং উপায়

আপনার অ্যাকাউন্টের  কোন ছবি বিক্রি  হওয়ার পর  জমাকৃত টাকার তার একটি পার্সেন্টেজ ওয়েবসাইটের মালিক নিয়ে যাবেন এবং আপনি একটি পার্সেন্টেজ পাবেন। মূলত বিভিন্ন মানুষ তাদের ব্যবসায়িক কাজের জন্য ফ্রী স্টক ইমেজ কিনে থাকেন।

আপনাদের বোঝার সুবিধার্থে  জনপ্রিয়  তিনটি ফটো সেলিং ওয়েবসাইট       

A.https://shutterstock.com
B. https://www.alamy.com
C. https://stock.adobe.com

ফটো সেল করার জন্য আরো অনেকগুলো বেশ জনপ্রিয় ওয়েবসাইট রয়েছে তার মধ্যে থেকে আমি আপনাদেরকে সাথে আপনাদের বুঝানোর জন্য  তিনটি ওয়েবসাইট শেয়ার করলাম।

উপরোক্ত বিষয়গুলোর মধ্যে যে  বিষয়টির প্রতি আপনার ইন্টারেস্ট রয়েছে সে বিষয়টি নিয়ে আপনি অনলাইনে টাকা ইনকাম করার জন্য  আজ থেকেই কাজ করা শুরু করে দিন। ধৈর্য ধরে লেগে থাকুন দেখবেন সফলতা একদিন  আসবেই।

মূলত  যেকোনো কাজে  সফলতা অর্জনের ক্ষেত্রে  ধৈর্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ধৈর্য সহকারে কাজ করা ছাড়া আপনি কোন কাজে তাড়াহুড়া করে সে কাজে সফলতা অর্জন করতে পারবেন না।

মূলত অনলাইনে টাকা আয় এর  উপর কাজ করার ক্ষেত্রে একটু বেশি ধৈর্যশীল হতে হয় এবং   প্রতিনিয়ত ধৈর্য সহকারে কাজ করে যেতে হয়। একটিভ ইনকাম  করেও আপনি অনলাইনে টাকা আয় করতে পারবেন।  কিন্তু এটি হবে আপনার সেই জীবনের জন্য একটি  দুর্বিষহ ব্যাপার।

তাই ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে  একটিভ ইনকাম এর পেছনে  না দৌড়ে প্যাসিভ ইনকাম এর পেছনে  ছুটাই  জ্ঞানী লোকের কাজ।
Collected from BDOnlineTips you can also visit this site.

Thanks all.